Breaking News
কিসমিসের ৫টি উপকারিতা

কিসমিসের ৫টি উপকারিতা

আমরা অনেকেই জানিনা যে, কিসমিস একটি স্বাস্থ্যগুণ সম্পন্ন খাবার। এমনকী কিসমিস ভেজানো পানিও শরীরের পক্ষে বিশেষ উপকারী। আঙুর ফলের শুকনা রূপ কিসমিসে থাকা কার্বোহাইড্রেট শরীরে অতিরিক্ত শক্তির জোগান দেয়। শুধু স্বাদেই অতুলনীয় নয় ছোট এই ড্রাই ফ্রুটে অনেক উপকারিতাও রয়েছে।

গবেষণায় দেখা গেছে, সোনালী বাদামী রংয়ের চুপসানো ভাঁজ হওয়া ফলটি খুবই শক্তিদায়ক। এতে রয়েছে, ভিটামিন বি৬ বা পাইরিডক্সিন, আয়রন, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম।

তো এবার চলুন জেনে নেওয়া যাক কিসমিসের ৫টি উপকারিতা সম্পর্কে;

কিসমিসের ৫টি উপকারিতা

  1. মনোযোগ বৃদ্ধিতে,
  2. অ্যানিমিয়া প্রতিরোধে ,
  3. জ্বর সারাতে ,
  4. চোখের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী্‌
  5. কোষ্ঠকাঠিন্য কমাতে

১. মনোযোগ বৃদ্ধিতেঃ

মনোযোগ বৃদ্ধিতে কিসমিস বিশেষ ভূমিকা পালন করে। কিসমিসে থাকা বোরন মস্তিষ্কের জন্য খুবই উপকারী। আর এই বোরন ধ্যান বাড়াতে সহায়ক। ফলে কাজে মনোযোগ বাড়ে। এটি বাচ্চাদের পড়াশোনাতেও মনোযোগী করে তুলতে পারে।

২. অ্যানিমিয়া প্রতিরোধেঃ

অ্যানিমিয়া প্রতিরোধেও কিসমিস বিশেষ ভূমিকা পালন করে। কিসমিসে প্রচুর পরিমাণে আয়রন আছে যা রক্তাল্পতা বা অ্যানিমিয়া কমাতে সরাসরি সাহায্য করে। এছাড়াও, ভিটামিন বি কমপ্লেক্সের অন্তর্গত বেশ কিছু ভিটামিন এতে পাওয়া যায়, যা নতুন রক্ত তৈরিতে সাহায্য করে। কিসমিসে কপারও থাকে যা রেড ব্লাড সেল তৈরিতে সাহায্য করে।

৩. জ্বর সারাতেঃ

কিসমিসে আছে ফেনল ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস, যার জীবাণুনাশক শক্তি, অ্যান্টিব্যাক্টিরিয়াল এবং অ্যান্টিওক্সিড্যান্ট বৈশিষ্ট্য ব্যাক্টেরিয়া এবং ভাইরাল ইনফেকশানের জন্য হওয়া জ্বর কমাতে সাহায্য করে।

৪. চোখের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারীঃ

চোখের জন্য আদর্শ খাবার। কিসমিস দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়। কিসমিসে রয়েছে ভিটামিন-এ ও বিটা ক্যারোটিন।

৫. কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়ঃ

নিয়মিত কিসমিস খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য কমে। আপনি যদি পেটের সমস্যায় নিয়মিত ভোগেন, তাহলে প্রতিদিন সকালে খালিপেটে ভেজানো কিসমিস খান। যারা কোষ্ঠকাঠিন্যে কষ্ট পান তারা ওষুধের বদলে নিয়মিত কিসমিস খেয়ে দেখতে পারেন।

ধন্যবাদ সবাইকে।

About প্রিয় নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *